গঙ্গা ভাঙনে তলিয়ে গেল রতুয়ার অস্থায়ী পুলিশ ক্যাম্প, ক্ষোভে ফুঁসছে স্থানীয় বাসিন্দারা

প্রতীকী ছবি

নিজস্ব সংবাদ, টিডিএন বাংলা: গঙ্গা নদীর ভাঙ্গনে তলিয়ে গেল রতুয়ার মহানন্দাটোলার অস্থায়ী পুলিশ ক্যাম্প। ভাঙ্গন রোধের স্থায়ী সমাধান না হওয়ায় ক্ষোভে ফুঁসছে মহানন্দাটোলা এলাকার স্থানীয় মানুষজন। এই অবস্থার জন্য কেন্দ্রীয় সরকারকে দুষলেন রতুয়ার বিধায়ক সমর মুখোপাধ্যায়। পাশাপাশি বাড়ছে মহানন্দা নদীর জল। ফলে মহানন্দার জলে প্লাবিত হওয়ার আশঙ্কায় রয়েছে ইংরেজবাজারের ৮, ১১, ১৩, ওয়ার্ডের নদী তীরবর্তী এলাকার বাসিন্দারা।

জানা গিয়েছে, রতুয়া-১ ব্লকের মহানন্দাটোলার শ্রীকান্ত টোলায় তৈরি করা হয়েছিল অস্থায়ী পুলিশ ক্যাম্প। গঙ্গা নদীর ভাঙনে তলিয়ে যায় পুলিশ ক্যাম্প। ভাঙ্গনের ফলে মহানন্দাটোলা ও বিলাইমারি দুই গ্রাম পঞ্চায়েতের কয়েকশো বিঘা জমি নদী গর্ভে তলিয়ে গিয়েছে। এখন নদী এগিয়ে আসছে গ্রামের দিকে। আতঙ্কে চোখের ঘুম উড়েছে দুই গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার মানুষের। রতুয়ার বিধায়ক সমর মুখার্জী বলেন, ‘যেভাবে ভাঙন শুরু হয়েছে তাতে নিশ্চিহ্ন হয়ে যাবে মহানন্দ তোলার একাংশ। কেন্দ্রীয় সরকার ভাঙন রোধের কাজে বিমাতৃ সুলভ আচরণ করছে বাংলার সাথে।’

উত্তর মালদার বিজেপি সাংসদ খগেন মুর্মু বলেন, ভাঙন প্রতিরোধের জন্য রাজ্য সরকারের কোন পরিকল্পনা নেই। রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে ভাঙন রোধের কাজের জন্য কেন্দ্রীয় সরকারকে কোন প্রস্তাব কোনদিন পাঠিয়েছেন। কোন বৈঠক ডাকা হলে রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে কেউ আসেন না। যদি রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে কোন প্রস্তাব আসে, তাহলে কেন্দ্রীয় সরকার সহযোগিতা করবে।