অঙ্কের মজা নিয়ে অনলাইনে ‘অনুসন্ধান’ এর আকর্ষণীয় কর্মশালা

 

টিডিএন বাংলা ডেস্কঃ কোভিড, ডেল্টা নিয়ে প্রকৃতির খামখেয়ালিপনায় যখন সারা বিশ্ব বিপর্যস্ত, বিশেষ করে নয়া প্রজন্ম দিশাহীন। তখন তাদের পাশে দাঁড়াতে নানাভাবে এগিয়ে এসেছে ‘অনুসন্ধান’।
পড়াশোনা হোক আনন্দময় এবং সাধারণভাবে গণিতের প্রতি যে ভীতি থাকে, তা কাটাতে রবিবার আয়োজন করা হয়েছিল অত্যন্ত আকর্ষণীয় এক অনুষ্ঠান। যার নাম দেয়া হয়েছিল ENJOY MATHS.
প্রায় আড়াই ঘণ্টার এই কর্মশালায় রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে অতি উৎসাহের সঙ্গে অনলাইনে উপস্থিত হয়েছিল ছাত্র-ছাত্রীরা। ছুটির দিনে ছিলেন তাদের অভিভাবকেরাও। কর্মশালার শেষে তাঁরা স্বীকার করেছেন অনুসন্ধানের এই প্রয়াস একবাক্যে অনবদ্য। আগামী দিনে এ ধরনের অনুষ্ঠান ছাত্র-ছাত্রীদের শুধুমাত্র পড়াশোনায় উৎসাহিত করে তুলবে, তা নয়, বরং অনেক ক্ষেত্রে দীর্ঘদিন লকডাউনের একঘেয়েমি অবসাদগ্রস্ততা কাটিয়ে তুলতেও সাহায্য করবে।
অনুসন্ধানের আহ্বানে এদিনের গণিত কর্মশালার সূচনা করেন দিল্লি থেকে প্রখ্যাত বিজ্ঞানী মতিয়ার রহমান খান। তিনি বলেন, বিভিন্ন আঙ্গিকে আমাদের ভাবনার অনুশীলন প্রয়োজন। অঙ্ক মানে যুক্তি, নানাভাবে নানা দৃষ্টিভঙ্গিতে যুক্তির বুনন যত মজবুত এবং দ্রুত হবে ততই বাড়বে মেধার বিকাশ। উপস্থিত অভিভাবকসহ ছাত্র-ছাত্রীদের এবং বিশেষ করে এদিন অংশগ্রহণকারী শিক্ষকদের তিনি এই কাজে এগিয়ে আসায় আন্তরিক ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।
গণিতের তিনটি বিভাগ নিয়ে এদিন আলোচনা হয়, বোর্ডে করেও দেখানো হয়। পরিমিতি নিয়ে নানাভাবে বিশ্লেষণ করেন গোখলে মেমোরিয়াল গার্লস হাই স্কুলের অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষিকা অরুন্ধতী মুখার্জি। জ্যামিতির নানা দিক নিয়ে বিভিন্ন রকম ভাবে সমস্যা সমাধান করে দেখান রহড়া রামকৃষ্ণ মিশন স্কুলের সিনিয়র শিক্ষক সমীর চক্রবর্তী। অবশেষে একঘাত-দ্বিঘাত সমীকরণের বিস্ময়কর সমাধান ও তার কৌশল নিয়ে নতুন আঙ্গিকে বীজগণিতের উপস্থাপনা করেন ইন্ডিয়ান স্ট্যাটিসটিক্যাল ইনস্টিটিউ-এর বিশিষ্ট শিক্ষক সুমিত্র পুরকায়স্থ। সমগ্র অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন গণিতের দুই বিশিষ্ট শিক্ষক গৌরাঙ্গ সরখেল ও নায়ীমুল হক। এছাড়া প্রধান সহকারী আয়োজক হিসেবে এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন আখের আলি সরদার ও সাহাবুল ইসলাম। এই কর্মশালায় সহযোগিতা প্রদানের জন্য সমস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষক ও সকল শিক্ষকদেরকে অনুসন্ধান-এর পক্ষ থেকে অভিবাদন জানান নাফিসা ইসমাত।