মইদুল ইসলাম মিদ্যার ঘটনায় পুলিশের ভূমিকায় তীব্র নিন্দা জানালো ফ্র্যাটারনীটি মুভমেন্ট অফ ইন্ডিয়া

টিডিএন বাংলা ডেস্ক: চলতি মাসের ১১ তারিখ কর্মসংস্থানের দাবীতে বাম ছাত্র-যুব সংগঠন নবান্ন অভিযান করে। ওই আন্দোলন কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করেছিলেন বাঁকুড়া জেলার কোতলপুরের যুবক মইদুল মিদ্যা। পুলিশের লাঠির আঘাতে গুরুতরভাবে আহত হন তিনি। কলকাতার এক বেসরকারি নার্সিংহোমে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ সকালে তাঁর মৃত্যু হয়। এদিন একটি সাংবাদিক সম্মেলন করে এই ঘটনায় পুলিশের ভূমিকার তীব্র নিন্দা জানিয়েছে ফ্র্যাটারনীটি মুভমেন্ট অফ ইন্ডিয়া।

সংগঠনের পক্ষ থেকে সাংবাদিক সম্মেলনে জানানো হয়েছে, “শিক্ষা ও কর্মসংস্থানের দাবিতে আন্দোলনকারী মইদুল মিদ্দ্যার মৃত্যুতে আমরা গভীর ভাবে শোকাহত। যেকোনো মৃত্যুই অত্যন্ত দুঃখের। আমরা দেখলাম গত ১১ই ফেব্রুয়ারি শিক্ষা ও কর্মসংস্থানের দাবিতে ছাত্র-যুবদের আন্দোলন কর্মসূচিতে অংশগ্রহণকারী বাঁকুড়া জেলার কোতুলপুরের যুবক মইদুল ইসলাম মিদ্দ্যা পুলিশের লাঠির আঘাতে গুরুতর আহত হন । ঐ অবস্থায় কলকাতার এক বেসরকারি নার্সিংহোমে চিকিৎসাধীন মইদুল ইসলাম মিদ্দ্যা আজ সকালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করে। এক তরতাজা যুবকের এই অকাল মৃত্যুতে আমরা গভীর শোক প্রকাশ করছি ও শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করছি ।”

ফ্র্যাটারনীটি মুভমেন্ট অফ ইন্ডিয়ার পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য শাখার পক্ষ থেকে রাজ্য সভাপতি আরাফাত আলী বলেন,”আমরা ঐ দিনে পুলিশের ন্যাক্কারজনক ভূমিকার তীব্র নিন্দা জানাই, এবং এই ঘটনায় জড়িত অফিসারদের চিহ্নিত করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছি । গণতান্ত্রিক আন্দোলনের অধিকার সবার রয়েছে। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনকভাবে বর্তমান সরকার বিভিন্নভাবে আন্দোলনরত সমস্ত শক্তিকে পরাস্ত করতে, নির্মমভাবে এই পুলিশি অত্যাচার নামিয়ে আনছে। বর্বরতা কোনভাবেই বরদাস্ত করা হবে না। অবিলম্বে এই ঘটনার পূর্ণাঙ্গ তদন্ত করে দোষীদের শাস্তি দিতে হবে এবং নিহতের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে রাজ্য সরকারকে অবিলম্বে উপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।”