করোনার পরিস্থিতিতে এবারো বন্ধ হজযাত্রা , সমস্ত আবেদনপত্র বাতিল করলো ভারতীয় হজ কমিটি

টিডিএন বাংলা ডেস্ক : করোনার জেরে ২২৩ বছরের ইতিহাসে দ্বিতীয়বারের মতো ভারত থেকে বাতিল হল হজযাত্রা। ভারতের হজ কমিটি মঙ্গলবার বিবৃতি জারি করে নিজের সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছে। বছর ঘুরলেও বদলায়নি পরিস্থিতি। ফের সংক্রমণের জেরে হজ যাত্রা থেকে বঞ্চিত হজে যেতে ইচ্ছুক ভারতীয়রা।

ভ্যাকসিন আসার পর এখনও নির্মূল হয়নি করোনা। উল্টে রূপ পরিবর্তন করে নয়া ভূমিকায় দুনিয়া জুড়ে তাণ্ডব সংক্রমণের। করোনা দ্বিতীয় ঢেউয়ে বেসামাল ভারতও। সংক্রমণ এখন নিম্নমুখী হলেও কাটেনি বিপদ।
সৌদি আরব সরকারের অনুমতি না মেলার কারণে স্বাভাবিক ভাবেই বাতিল করা হয়েছে হজ যাত্রার অনুমতি। সৌদি আরব সরকার নিজের দেশের নাগরিকদের হজ যাত্রার জন্যেও একাধিক বিধিনিষেধ আরোপ করেছে। ১৮ থেকে ৬৫ বছর বয়সী যাঁরা হজযাত্রায় অংশ নেবে তারা টিকা নিলে তবেই অনুমতি পাবেন। গত বছরও সৌদি আরব সরকার বাইরের দেশের নাগরিকদের হজ যাত্রায় নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল করোনার কারণে।

এ বছর হজ পালনের সম্ভাব্য তারিখ ১৭ জুলাই ।প্রতিবছর বিশ্বের প্রায় ২৫ লাখ মানুষ হজ পালনের উদ্দেশ্য সৌদি আরব যান। তার মধ্যে আনুমাণিক ২ লক্ষ মানুষ যান ভারত থেকে। কিন্তু করোনা সংক্রমণের জেরে ২০২০ সালে ২২২ বছরে প্রথমবার বাতিল হয় হজ। গতবছর ওই দেশে বসবাসকারীদের নিয়ে সীমিত পরিসরে হজের আয়োজন করে সৌদি। সংক্রমণ ঠেকাতে বিদেশিদের আগমনে ছিল নিষেধাজ্ঞা। মাত্র এক হাজার সৌদি নাগরিক ও সেখানে অবস্থানরত বিদেশিদের হজের অনুমতি দিয়েছিল সে দেশের সরকার।

এক বিজ্ঞপ্তিতে সৌদি আরবের উমরাহ এবং হজ মন্ত্রক (Ministry of Haj and Umrah, Kingdom of Saudi Arabia) এ বিষয়ে একটি বিবৃতি জারি করেছে। বলা হয়েছে, করোনাভাইরাস মহামারিজনিত (Coronavirus pandemic) পরিস্থিতির কারণে তারা সৌদি আরবের নাগরিক এবং বাসিন্দাদেরই শুধুমাত্র হজে অংশ নেওয়ার অনুমতি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এ বছর হজ সীমিত পরিসরেই পালন করা হবে, যে কারণে আন্তর্জাতিক পূণ্যার্থীদের প্রবেশ নিষেধ করা হয়েছে।

সংখ্যালঘু সম্প্রদায় উন্নয়ন মন্ত্রকের মন্ত্রী মুখতার আব্বাস নকভি জানিয়েছেন, করোনা মহামারীর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সৌদি আরব সরকারের পাশে আছে ভারত। তাই সে দেশের হজ বাতিলের সিদ্ধান্তকে মান্যতা দিল ভারতও। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি জানিয়েছেন, করোনাযুদ্ধে ভারত সৌদি আরবের পাশে আছে। তাই তাদের সিদ্ধান্ত মেনেই এবার ভারত থেকে কেউ হজে যাবেন না।” উল্লেখ্য, ইসলাম ধর্মের পবিত্র যাত্রা হজ। ইসলাম ধর্মলম্বীরা প্রতিবছর সৌদি আরবেব মক্কায় তীর্থ করতে যান। দুশোর বছরেরও বেশি সময় ধরে এই প্রথা চলে আসছে।