সংবাদসংস্থা দৈনিক ভাস্করের অফিসে হানা আয়কর দফতরের, সরকারের সমালোচনায় এমনটা হচ্ছে দাবি বিরোধীদের

টিডিএন বাংলা ডেস্ক : আজ সকালে সারাদেশে মিডিয়া গ্রুপ দৈনিক ভাস্করের বেশ কয়েকটি অফিসে আয়কর অভিযান চালানো হয়। কর ফাঁকি দেওয়ার অভিযোগে দৈনিক সংবাদপত্র ‘দৈনিক ভাস্কর’-এর একাধিক অফিসে হানা জানিয়েছে আয়কর দফতরের আধিকারিকরা।

আয়কর আধিকারিকরা বৃহস্পতিবার দিল্লি, মধ্যপ্রদেশের ভোপাল, রাজস্থানের জয়পুর, গুজরাতের আমদাবাদ-সহ পত্রিকার বেশ কয়েকটি অফিসে হানা দিয়ে তল্লাশি চালায়।সংবাদ গ্রুপটির আধিকারিকদের বাড়ি ও অফিসেও অভিযান চালানো হয়েছে। এমনটাই জানিয়েছে সংবাদসংস্থা এনআইএ

বিরোধীরা অভিযোগ করছেন যে সরকার কর্তৃক কোভিডএর “অব্যবস্থাপনা” নিয়ে রিপোর্ট করার কারণে এই সংবাদ গ্রুপটির উপর অভিযান চালানো হয়। কংগ্রেস নেতা জয়রাম রমেশ টুইট করেছেন “দৈনিক ভাস্কর তার রিপোর্টিংয়ের মাধ্যমে কোভিড-১৯ মহামারীর মোদি শাসনের স্মৃতিসৌধিক অব্যবস্থাপনাকে উন্মোচিত করেছে। বর্তমানে এই পত্রিকা এর মূল্য পরিশোধ করছে।”
অরুণ শৌরি যেমন বলেছেন – “এটি একটি সংশোধিত জরুরি অবস্থা,”।

এই খবর প্রকাশ্যে আসতেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে নিশানা করেন তৃণমূলের রাজ্যসভা সাংসদ ডেরেক ও’ব্রায়েন।
দৈনিক ভাস্করের অফিসে আয়কর দফতরের হানা দেওয়া প্রসঙ্গে টুইটারে ডেরেক লেখেন, ‘মোদী-শাহ যে ভয় পেয়েছেন, তার আরও একটি প্রমাণ। যে সব মিডিয়ার মেরুদণ্ড রয়েছে, তারা শক্ত থাকুন।’

প্রসঙ্গত, কোভিড দ্বিতীয় ঢেউয়ের সময়ে দেশ জুড়ে চরম অব্যবস্থা নিয়ে লাগাতার লেখালেখি চলেছিল ‘দৈনিক ভাস্কর’-এ। বিরোধীদের দাবি, সরকারি তরফে সে সময়ে যা যা দাবি করা হয়েছিল, সেই সব দাবিকে খণ্ডন করে সত্য তুলে ধরার ক্ষেত্রে অগ্রণী ভূমিকা নিয়েছিল এই সংবাদপত্র।
এর জেরেই সরকারের অস্বস্তি বেড়েছিল বলে দেশবাসীর সামনে।