গভীর রাতে পতাকা লাগানোকে কেন্দ্র করে বিজেপ- তৃণমূল সংঘর্ষ সিউড়িতে

কৌশিক সালুই, টিডিএন বাংলা,বীরভূম: গভীর রাতে পতাকা লাগানোকে কেন্দ্র করে বিজেপি তৃণমূল সংঘর্ষ উত্তাল হল এলাকা। ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার বীরভূমের সিউড়িতে। অভিযোগ ঘটনায় এক তৃণমূল কর্মীকে মেরে মাথা ফাটিয়ে দিয়েছে বিজেপি। যদিও পাল্টা দাবি তাদের কর্মীদের চক্রান্ত করে ফাঁসানো হয়েছে এবং মারধর করা হয়েছে। মারধরের ঘটনায় এক অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।
স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে আক্রান্ত তৃণমূল কর্মী হলেন শেখ আকবর। বাড়ি সিউড়ি শহরে। তৃণমূল কংগ্রেসের অভিযোগ বিজেপি কর্মীরা তাদের দলীয় পতাকা লাগানোর সময় তৃণমূলের পতাকা খুলে ফেলে দিচ্ছিল। সেটি দেখতে পেয়ে আকবর প্রতিবাদ করে। তার ফলেই মারামারির ঘটনা ঘটে। অন্যদিকে বিজেপির দাবি
বীরভূমে রথের মাধ্যমে পরিবর্তন যাত্রার সূচনা হয়েছে তারাপীঠ থেকে। সিউড়িতেও আসবে রথ। তারই প্রস্তুতি হিসাবে বুধবার রাতে দলীয় পতাকা লাগাচ্ছিলেন দলীয় কর্মীরা সিউড়ি শহরের চৈতালী মোরে। সেসময় পরিকল্পনা করে তৃণমূল কর্মীরা তাদের ওপর আক্রমণ করে এবং পুলিশ বিজেপি এক কর্মীকে ঘটনাস্থল থেকে গ্রেপ্তার করে নিয়ে যায়। পুলিশ বিষয়টি রাজনৈতিক সংঘর্ষ বলতে নারাজ। ব্যক্তিগত আক্রোশ থেকেই দুই গোষ্ঠীর সংঘর্ষ বলে দাবি পুলিশের। তৃণমূলের শহর সভাপতি মহম্মদ সফি বলেন,” বিজেপির কর্মীরা তাদের দলীয় পতাকা লাগানোর সময় আমাদের পতাকা খুলে ফেলে দিচ্ছিল। আমাদের এক কর্মী বিষয়টি দেখতে পেয়ে প্রতিবাদ করলে তাকে মারধর করে ঘটনাস্থলে থাকা বিজেপি কর্মীরা, আক্রান্ত আমাদের কর্মী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন”।
বিজেপির শহর সভাপতি স্বপন দাস বলেন,” চক্রান্ত করে ফাঁসানো হচ্ছে আমাদের। আমাদের কর্মীরা দলীয় কর্মসূচির জন্য পতাকা লাগাচ্ছিল। সব সময় বাধা দেয় তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা। আমাদের কর্মীদের মারধর করে। উল্টে আমাদের এক কর্মীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ”।