উত্তরপ্রদেশে চুক্তিভিত্তিক শিক্ষকদের করুণ দুর্দশা: কোভিডে মৃত্যু হলে নেই কোনো ক্ষতিপূরণ

টিডিএন বাংলা:সারা দেশের মতই উত্তর প্রদেশে চুক্তিভিত্তিক শিক্ষকদের করুণ দুর্দশা। তাদেরকে সমস্ত দায়িত্ব পালন করতে হয় স্থায়ী শিক্ষকদের মতই কিন্তু সুযোগ সুবিধা পাওয়ার ক্ষেত্রে তারা সবসময় বঞ্চিত থেকেছেন। বিশেষ করে নির্বাচনী দায়িত্ব পালন করার সময় কোন কর্মীর কোভিডে মৃত্যু হলে তাদের জন্য কোনো ক্ষতিপূরণ দেয়া হচ্ছে না।

যখন পাঁচটি রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচন চলছিল তখন উত্তরপ্রদেশে চলেছে পঞ্চায়েত নির্বাচন। উত্তরপ্রদেশ শিক্ষা মিত্র সহ-সভাপতি ত্রিভুবন মিত্র জানান পঞ্চায়েত নির্বাচনে কমপক্ষে ৩৬ জন চুক্তিভিত্তিক শিক্ষকের মৃত্যু হয়েছে এবং তাদের সকলেই ডিউটিরত অবস্থায় কোভিডে আক্রান্ত হন। কিন্তু দুঃখের বিষয় এই সকল শিক্ষকদের জন্য কোন কম্পেন্সেশন এর ব্যবস্থা উত্তর প্রদেশ সরকারের পক্ষ থেকে করা হয়নি। যদিও নির্বাচন রত অবস্থায় নির্বাচনী সন্ত্রাস এর দ্বারা যদি কোন কর্মী নিহত হয় তাহলে তাদের জন্য ৫০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত ক্ষতিপূরণের বিধান রয়েছে। কিন্তু যারা নির্বাচন চলাকালীন ডিউটিরত অবস্থায় কোভিডে আক্রান্ত হয়ে মারা গিয়েছেন তাদের জন্য কোন ক্ষতিপূরণের ব্যবস্থা নেই। অপরদিকে রাজস্থান ও বিহার সরকারের পক্ষ থেকে ডিউটি রত অবস্থায় কোভিডে আক্রান্ত ব্যক্তিরা মৃত্যুবরণ করলে ৩০ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়ার বিধান রাখা হয়েছে। যে সকল চুক্তি ভিত্তিক শিক্ষক নির্বাচনে ডিউটি করতে যান তাদের প্রত্যেকেরই প্রায় আর্থিক সংকটের সঙ্গে লড়াই করতে হয়। কেননা তাদের সর্বোচ্চ বেতন ১০ হাজার টাকা। কিন্তু তাদের জন্য কোন সরকারি সুযোগ সুবিধা নেই। এই সামান্য বেতনে এমনিতেই সংসার চালানো মুশকিল। তারপরেও বিপদাপদের সম্মুখীন হলে কিভাবে পরিবার পরিজনদের নিয়ে দিন অতিবাহিত করা হবে প্রশ্ন এক চুক্তি ভিত্তিক শিক্ষক এর স্ত্রী নিতু শর্মার।