তৃতীয় ঢেউয়ের দোরগোড়ায় ব্রিটেন, আশঙ্কা বিশেষজ্ঞদের

টিডিএন বাংলা ডেস্কঃ করোনা ভাইরাসের তৃতীয় ঢেউ এসে পড়তে পারে ব্রিটেনে এমনটাই আশঙ্কা বিশেষজ্ঞ মহলের। বিবিসি’র রেডিও ৪-কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এমনটাই জানিয়েছেন অধ্যাপক রবি গুপ্তা। শ্বাসযন্ত্রে আক্রমণকারী ভাইরাসগুলিকে প্রতিহত করতে তৈরি সরকারের উপদেষ্টা গোষ্ঠীর এই সদস্য বলেন, ‘বর্তমানে যেভাবে ফের সংক্রমণের হার উপরের দিকে উঠতে শুরু করেছে, তাকে তৃতীয় ঢেউয়ের প্রাথমিক লক্ষ্মণ হিসেবেই মনে করছি। এর মধ্যে এক তৃতীয়াংশই নয়া ভ্যারিয়েন্ট থেকে সংক্রামিত হয়েছেন।’ তাঁর আরও সংযোজন, ‘এটা ঠিক যে, এখন দিনপ্রতি নতুন আক্রান্তের সংখ্যা তুলনামূলকভাবে কম রয়েছে। কিন্তু, সংক্রমণের সব ঢেউয়ের ক্ষেত্রেই প্রথম দিকে এটাই হয়ে থাকে। পরে সেটা এতটাই বেড়ে যায় যে পরিস্থিতি হাতের বাইরে চলে যায়। তাই এখন আমরা যেটা দেখছি, সেটা প্রাথমিক স্তর মাত্র।’
সে দেশে করোনা বিধিনিশেধ শিথিল করার ভাবনা চিন্তা করছে সে দেশের সরকার।

কিন্তু পরে বিপদের কারন হবে কিনা সে ভাবনাও রয়েছে। রবি গুপ্তা বলেন, ‘দেশজুড়ে বিপুল হারে টিকাকরণ কর্মসূচি চলছে বলে তৃতীয় ঢেউ প্রকট হতে হয়ত একটু দেরি হবে। এই পরিস্থিতিতে মানুষ ঢিলেমি দিয়ে ফেলতে পারেন। আর সেটাই আমাদের কাছে উদ্বেগের বিষয়।’ এই জায়গায় দাঁড়িয়ে আরও কিছুটা সময় নিয়ে বিধিনিষেধ শিথিল করলে সংক্রমণের গ্রাফ ও পরিসংখ্যানগুলি বিশ্লেষণ ও সেইমতো পরিকল্পনা করার সুযোগ পাওয়া যাবে বলেই জানান তিনি। একই মত ব্যক্ত করেছেন লন্ডন স্কুল অব হাইজিন অ্যান্ড ট্রপিক্যাল মেডিসিনের অধ্যাপক মার্টিন ম্যাককিও। তাঁর কথায়, ‘দেশের একাধিক অংশে সংক্রমণের হার যেভাবে বাড়ছে তাতে মনে হচ্ছে আমরা তৃতীয় ঢেউয়ের প্রাথমিক পর্যায়ে রয়েছি। অলৌকিক কিছু না ঘটলে, জুন মাসে আনলকের পথে হাঁটা ঝুঁকিপূর্ণ হতে পারে।’