জম্মু কাশ্মীরের রাজ্যের মর্যাদা ফিরে পাবার দাবিতে বিরোধীপক্ষ মেহবুবার সাথে জোট বাঁধলেন ফারুক আবদুল্লাহ

ছবি সৌজন্যে: ওমর আবদুল্লাহ টুইটার পেজ

টিডিএন বাংলা ডেস্ক: বৃহষ্পতিবার জম্মু কাশ্মীরের কড়া নিরাপত্তা ও বিধি-নিষেধের মধ্যেই রাজ্যের বিশেষ মর্যাদা ফেরত পেতে ও ৩৭০ ধারা ফিরে পেতে চরম বিরোধীদল পিডিপির সাথে জোট বাঁধার সিদ্ধান্ত নিলেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ফারুক আব্দুল্লাহ। সঙ্গে রয়েছেন সাজ্জাদ লোন ও অন্যান্য গোষ্ঠীগুলি।

গতকালই দীর্ঘ ১৪ মাসের গৃহবন্দি দশা থেকে মুক্তি পেয়েছেন জম্মু কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা পিডিপি সভানেত্রী মেহবুবা মুফতি। এরপর চব্বিশ ঘন্টা কাটতে না কাটতেই প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ফারুক আবদুল্লাহর বাড়িতে অন্যান্য বিরোধী দলগুলোর সাথে বৈঠকে যোগদান করেন মেহবুবা মুফতি। দাবি কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা।

এদিন ফারুক আব্দুল্লাহ এই বিশেষ জোট সম্পর্কে সংবাদমাধ্যমকে বলেন, আমাদের এই জোটের নাম হবে পিপলস অ্যালায়েন্স ফর গুপকার ডিক্লেয়ারেশন। আমাদের এই লড়াই সাংবিধানিক লড়াই। আমরা চাই ২০১৯ সালের ৫ আগস্ট এর আগে এই রাজ্যের মানুষদের যে অধিকার ছিল তা কেন্দ্র ফিরিয়ে দিক।

প্রসঙ্গত, গতবছর ৫ অগাস্ট সংবিধানের ৩৭০ ধারা এবং ৩৫ এ ধারা বিলোপের মাধ্যমে জম্মু কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা খর্ব হয় এবং জম্মু-কাশ্মীর ও লাদখকে দুটি পৃথক কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল হিসেবে ঘোষণা করা হয়। এরপর রাতারাতি জম্মু-কাশ্মীরের সমস্ত প্রথম সারির রাজনৈতিক নেতাদের আটক করা হয়। গৃহবন্দী করা হয় জম্মু-কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথাপি পিডিপি সভানেত্রী মেহবুবা মুফতি, জম্মু-কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ফারুক আব্দুল্লাহ ও ওমর আব্দুল্লাহকে। ওমর আব্দুল্লাহ, ফারুক আব্দুল্লাহ চলতি বছরের শুরুর দিকে মুক্তি পেয়ে গেলেও মুক্তি পাননি মেহবুবা মুফতি। তাই এবার মেহেবুবা মুফতি মুক্তি পাবার পর পরই জম্মু-কাশ্মীরের ভবিষ্যৎ রাজনৈতিক লড়াইয়ের পথ প্রশস্ত করতে একসময়ের চরম বিরোধী পিডিপির হাত ধরে এগুনো সিদ্ধান্ত নিল ন্যাশনাল কনফারেন্স। একসময় নির্বাচনী লড়াইয়ে বিজেপির সঙ্গে জোট বাঁধার জন্য এই বিজেপির বিরোধিতা করেছিলেন ফারুক আব্দুল্লাহরা, কিন্তু এখন আর পরিস্থিতি লড়াই করার নয়। তাই নিজেদের ব্যক্তিগত বিভেদ ভুলে জম্মু-কাশ্মীরের রাজ্যের মর্যাদা ফিরিয়ে আনতে একজোট হওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়ে তৈরি হয়েছে পিপলস অ্যালায়েন্স ফর গুপকার ডিক্লেয়ারেশন।