গণতন্ত্রই আজ গণধর্ষণের শিকার, রাহুল গান্ধীকে ফেলে দেওয়ার ঘটনায় মন্তব্য শিবসেনা সাংসদ সঞ্জয় রাউতের

টিডিএন বাংলা ডেস্ক: গণতন্ত্রই আজ গণধর্ষণের শিকার। হাথরসে নির্যাতিতা তরুণীর বাড়িতে সাক্ষাৎ করতে যাওয়ার সময় রাহুল গান্ধীকে ফেলে দেওয়ার ঘটনায় ঠিক এভাবেই যোগী পুলিশকে আক্রমন করলেন শিবসেনা সাংসদ সঞ্জয় রাউত। সংবাদ মাধ্যমকে তিনি বলেন, রাহুল গান্ধী একজন জাতীয় স্তরের নেতা। ওঁদের সঙ্গে নানা বিষয়ে মতপার্থক্য থাকতেই পারে। কিন্তু জাতীয় স্তরে স্বীকৃত এক জন নেতা, যিনি একটি গুরুত্বপূর্ণ পরিবারের সদস্যও। মাঝ রাস্তায় আটকে পুলিশ তাঁর সঙ্গে যে আচরণ করেছে তা কেউ সমর্থন করবেন না। সেখানে ১৪৪ ধারা জারি ছিল মানছি, আইন-শৃঙ্খলার গুরুত্বও বুঝি, কিন্তু এই ধরনের আচরণ কখনও বরদাস্ত করা যায় না। রাহুল গান্ধী ইন্দিরা গান্ধীর পৌত্র। রাজীব গান্ধী তাঁর পিতা। যাঁরা দেশের জন্য আত্মবলিদান দিয়েছিলেন। রাহুল গাঁধীর রাজনীতির সঙ্গে একমত নাই হতে পারেন কিন্তু উত্তরপ্রদেশে যা ঘটেছে দলিত সম্প্রদায়ের একটি মেয়েকে যে ভাবে ধর্ষণ করে খুন করা হয়েছে এবং তাঁর পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে যাওয়ার সময় এক জন রাজনীতিকের সঙ্গে যে আচরণ করা হয়েছে তা একেবারেই গ্রহণযোগ্য নয়। যে ভাবে তাঁকে আটকানো হয় তা নিশ্চয়ই টিভিতে দেখেছেন! কলার ঘরে টেনে মাটিতে ফেলে দেওয়া হয় ওঁকে। তাই বলতেই হচ্ছে দেশের গণতন্ত্রই আজ গণধর্ষণের শিকার।’’