জোর করে ‘ জয় শ্রীরাম ’ বলিয়ে দাড়ি কেটে নেওয়া হলো উত্তর প্রদেশের এক বৃদ্ধ মুসলিমের

A screenshot from a video of the incident. | Twitter/Mohammed Zubair

টিডিএন বাংলা ডেস্ক : উত্তর প্রদেশে এবার আক্রমণের শিকার এক মুসলিম বৃদ্ধ । নমাজ পড়তে যাওয়ার সময় তাঁকে তুলে নিয়ে বেধড়ক মারধর করে একদল উগ্র হিন্দুত্ববাদী । সেই বীর পুঙ্গবরা তাঁকে দিয়ে জোর করে ‘ জয় শ্রীরাম ’ স্লোগান দেওয়ায় । আবার রাজস্থানে বলদ পাচারের অপবাদ দিয়ে খুনই করা হয়েছে একজনকে। গুরুতর হয়েছেন আরেকজন । দুরাজ্যের দুই ঘটনার সঙ্গেই সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা ছড়ানোর লক্ষণ স্পষ্ট । প্রদেশের ঘটনাটি ঘটেছে গাজিয়াবাদ জেলার লোনিতে । আবদুল সামাদ নামের এক বৃদ্ধ মসজিদে যাচ্ছিলেন নমাজ পড়তে । তখন তাঁকে আটো রিকশায় তুলে কাছে এক জঙ্গলের মধ্যে বাড়িতে নিয়ে গিয়ে মারধর করে একদল উগ্র হিন্দুত্ববাদী । ঘুষি , লাথি মারার পাশাপাশি লাঠি দিয়েও পেটায় । আর মুখে উগ্র হিন্দুত্ববাদীদের প্রিয় ধ্বনি দিতে থাকেন এবং বৃদ্ধকেও জোর খাটায় তাদের সঙ্গে একই কথা উচ্চারণ করতে । এমনকি তাঁকে ‘পাকিস্তানের চর’বলেও অপবাদ দেয় । আক্রমণকারীদের বয়সে তরুণ একজন আবার ছুরি বের করে বৃদ্ধ আবদুল সামাদের দাড়ি কেটে নেয় । পরে পুলিশ জানায় যে , সন্দেহভাজন মূল অভিযুক্ত প্রবেশ গুজ্জর ধরা পড়েছে এবং বাকিদের গ্রেপ্তারে জোর তল্লাশি চালানোর হচ্ছে । এই হামলার ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সর্বত্র। ভিডিও – তে দেখা যাচ্ছে, হামলাকারীদের হাত থেকে বাঁচতে হাত জোড় প্রাণভিক্ষা চাইছেন বৃদ্ধ সামাদ ।

যে দাড়ি কেটে নেয় যে যুবক তার পরনে ছিল ফুলহাতা টি – শার্ট এবং নীলরঙা সােয়েটপ্যান্ট । বৃদ্ধ সামাদকে মারধর করছিল আরও দুই যুবকের একজনের পরনে ছিল কালো শার্ট ও লাল প্যান্ট এবং আরেকজনের হালকা নীল টি – শার্ট ও ধূসর রঙা প্যান্ট । কাঁদতে কাঁদতে সামাদকে বলতে দেখা যাচ্ছে , “আমি নমাজ পড়তে যাচ্ছিলাম । তখন আমাকে একজন অটোয় উঠতে বলে । ওই অটোয় আরও দু’জন বসেছিল । তারা আমাকে একটু দাঁড়াতে বলে । তারপর অটোয় তুলে নিয়ে যায় । একটা বাড়িতে ঢুকিয়ে বেধড়ক মারধর করে । আমাকে জোর করে ওদের সঙ্গে ধ্বনি দিতে বলে । আমার মোবাইল কেড়ে নেয় , দাড়ি কেটে দেয় । শুধু তাই নয় , তাঁকে মোবাইল একটি ভিডিও দেখে হুমকি দেয় যে এমন পরিণতি হবে তাঁরও । তাতে দেখা যায় যে । এক মুসলিমকে মারধর করা হচ্ছে । মুখে বলতে থাকে , আগে এভাবে বহু । মুসলিমকে খুন করেছে তারা । বৃদ্ধের অভিযোগের ভিত্তিতে মামলা দায়ের করেছে পুলিশ । পুলিশি হেপাজতে থাকা অভিযুক্ত এখনও বয়ান দেয়নি । তবে উত্তর প্রদেশে যোগী আদিত্যনাথ সরকারের আমলে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের ওপর এধরনের হামলার ঘটনা ঘটেই চলেছে । রাজ্যের বিজেপি সরকারের বস্তুত মদতেই এমন ঘটনা ঘটে চলেছে । সরকার এক্ষেত্রে তেমন কোনও ব্যবস্থাই নেয় না । ওদিকে , রাজস্থানে আবার গোরু পাচারের অজুহাত দেখিয়ে হত্যার ঘটনা ঘটল । সোমবার পুলিশ জানায় , রাজ্যের চিত্তোরগড় জেলার বুগুন শহর থেকে বলদ কিনে মধ্য প্রদেশে নিজের গ্রামে চাষের জন্য নিয়ে যাচ্ছিলেন বাবু ভিল এবং পিন্টু ভিল । রবিবার মধ্যরাতে ঘটনাটি ঘটে । গোরু পাচার হচ্ছে এই অভিযোগে তাঁদের দুজনকে মারধর করে লোকজন । পরে হাসপাতালে মারা যান বাবু ভিল ।(সৌজন্য- গণশক্তি)