‘মেসি ব্যালন ডি’অর পেলে তা হবে ইতিহাসে সবচেয়ে নোংরা’ মন্তব্য ফরাসি বক্সার টনি ইয়োকার

টিডিএন বাংলা ডেস্ক : কোপা আমেরিকার আগেও এবারের ব্যালন ডি’অর লড়াইয়ে লিওনেল মেসির সম্ভাবনা খুব বেশি ছিল না। তবে কোপা জেতায় ব্যালন ডি’অর এর আলোচনায় চলে এসেছে লিওর নাম তবে সেটি মানতে রাজি নন ফরাসি বক্সার টনি ইয়োকার।

সোনাজয়ী বক্সার মেসিকে এবারের ব্যালন ডি’অরের যোগ্য মনে করেন না , এরপরও বার্সেলোনা কোচ রোনাল্ড কোম্যানসহ অনেকেই মেসিকে এগিয়ে রেখে মন্তব্য করায় বেজায় চটেছেন এই বক্সার।
টনির মতো অতোটা আগ্রাসী না হলেও চেলসির সাবেক কিংবদন্তি ফরোয়ার্ড জিয়ানফ্রাঙ্কো জোলা, ব্যালন ডি’অর দেখতে চান জর্জিনহোর হাতে।

মেসি কেবল ব্যালনের যোগ্য নন বলেই ক্ষান্ত হননি তিনি। বলেছেন, আর্জেন্টাইন তারকা যদি সত্যিই এবার এই পুরস্কার পান, তাহলে সেটি হবে ইতিহাসের সবচেয়ে বড় নোংরামি। নিজের মন্তব্যের যুক্তিকতা বোঝাতে বেশ কিছু বিষয়ও তুলে এনেছেন এই ফরাসি বক্সার।

ইনস্টাগ্রামে দীর্ঘ এক পোস্ট দিয়ে ইয়োকা ব্যাখ্যা দিয়েছেন, মেসি কেন ব্যালন ডি’অরের যোগ্য নন।

তিনি লিখেছেন, ‘এমন একটা সময়ে বাস করছি যখন লা লিগায় তৃতীয় হওয়া একটি দলের খেলোয়াড়কে ব্যালন ডি’অর দিতে চাই আমরা। যার দল চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ ১৬-তে ঘরের মাঠে ১-৪ গোলে হেরে বাদ পড়েছে, তাকে ব্যালন ডি’অর দিতে চাই। এমন একজনকে ব্যালন ডি’অর দিতে চাই, যিনি সুপারকোপা ডি এস্পানার ফাইনালে লালকার্ড খেয়েছে এবং ম্যাচ হেরেছে। শুধু মাত্র চিলি, ইকুয়েডর ও বলিভিয়ার সঙ্গে ৪টি গোল করার জন্য আমরা তাকে ব্যালন ডি’অর দিতে চাচ্ছি।’

গত মৌসুমের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘মেসি লা লিগায় ২৯ গোল করেছেন এর মধ্যে ২৪টিই পয়েন্ট তালিকার নিচের ৭ দলের বিপক্ষে। চ্যাম্পিয়নস লিগে সে ৫ গোল করেছে যার মধ্যে ৪টিই পেনাল্টি থেকে। তিনি যদি এটা জিতে তাহলে এটি হবে ইতিহাসের সবচেয়ে নোংরা ব্যালন ডি’অর।’

ব্যালন ডি’অর ফুটবলের ব্যক্তিগত অর্জনের সর্বোচ্চ মুকুট। সোনালী এই ট্রফিটার জন্য উন্মাদনা কিংবা রোমাঞ্চে ভাটা পড়েনি কখনই। তবে করোনাকালে গতবার বাতিল হওয়ায়, এবার তা পাচ্ছে ভিন্নমাত্রা। পুরস্কার ঘোষণার বাকি এখনও ঢের, তবুও জমে উঠেছে ফুটবলার, কোচ কিংবা সমর্থকদের কথার লড়াই। আনুষ্ঠানিকভাবে ব্যালন ডি’অর ঘোষণার এখনো বাকি পাঁচ মাসের বেশি।